প্রতিটি ঘটনা দক্ষতার সাথে মোকাবিলা করছে পুলিশ বাহিনী- সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী

বিশেষ প্রতিনিধি: দেশে ঘটে যাওয়া প্রতিটি ঘটনা দক্ষতার সাথে মোকাবিলা করছে পুলিশ বাহিনী। রাতের আঁধারে যারা বিশৃংখলা ঘটাতে চায় তাদেরও শক্ত হাতে দমন করতে হবে। সাম্প্রদায়িক ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের কোনো ছাড় দেয়া হবেনা বলে মন্তব্য করেছেন সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু এমপি।
‘মুজিবর্ষে পুলিশের নীতি, জনসেবা আর সম্প্রীতি’ স্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে নেত্রকোণায় কমিউনিটি পুলিশিং ডে উদযাপিত হয়েছে। শনিবার বেলা ১১টার দিকে শহরের মোক্তারপাড়া এলাকায় পাবলিক হলে জেলা পুলিশ ও কমিউনিটি পুলিশিং জেলা কমিটির আয়োজনে আলোচনা সভা হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ফকরুজ্জামানের সভাপতিত্বে ও কমিউনিটি পুলিশিং জেলা কমিটির সদস্য সাইফুল্লাহ এমরানের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন, মাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আশরাফ আলী খান, সংরক্ষিত নারী আসনের স্থানীয় সাংসদ হাবিবা রহমান খান, জেলা প্রশাসক কাজি মো. আবদুর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রশান্ত কুমার রায়, পৌর মেয়র মো. নজরুল ইসলাম খান, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মতীন্দ্র সরকার প্রমুখ।


সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান বলেন, ‘কমিউনিটি পুলিশিং হচ্ছে অপরাধ সমস্যা সমাধানে পুলিশ ও জনগণের যৌথ অংশীদারিত্ব প্রতিষ্ঠার একটি পুলিশিং দর্শন। আমাদের দেশে পুলিশি কর্মকাণ্ডে জনগণের অংশীদারত্ব প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে কার্যকরভাবে অপরাধ প্রতিরোধের জন্য কমিউনিটি পুলিশিং কাজ করে যাচ্ছে। কমিউনিটি পুলিশিং কমিউনিটি সদস্যদের উদ্বেগ সৃষ্টিকারী সামাজিক বিশৃঙ্খলা ও অপরাধ বিষয়ক সমস্যাগুলো সমাধানের জন্য পুলিশ ও জনগণ অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে যৌথভাবে কাজ করে।’
জেলা প্রশাসক কাজি মো. আবদুর রহমান বলেন, পুলিশ এখানে শুধু অপরাধীদের গ্রেপ্তার, তদন্ত, আলামত বা নিষিদ্ধ বস্তু উদ্ধার কিংবা অপরাধীদের আদালতের মাধ্যমে শাস্তির ব্যবস্থা করার মধ্যে সীমিত থাকে না। কমিউনিটি পুলিশিং অপরাধের কারণগুলো খুঁজে বের করে সেসব দূর করা এবং অপরাধীদের পুনর্বাসনের মতো সামাজিক কল্যাণকর কাজেও অংশগ্রহণ করে।’

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।