নেত্রকোণায় বিজিবি’র অভিযানে ৬৩ লক্ষ টাকার ভারতীয় মালামাল আটক

বিশেষ প্রতিনিধি: বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ নেত্রকোণা ব্যাটালিয়ন (৩১ বিজিবি) দুর্গাপুর উপজেলার ভারতীয় সীমান্তবর্তী পৃথক পৃথক স্থানে অভিযান চালিয়ে ৬৩ লক্ষ ২৪ হাজার ৯ শত ৭০ টাকা মূল্যের চোরাচালানকৃত বিপুল পরিমান ভারতীয় মালামাল আটক করেছে।
নেত্রকোণা ব্যাটালিয়ন (৩১ বিজিবি) অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল এ এস এম জাকারিয়া মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে প্রেরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, দুর্গাপুর উপজেলার দুর্গাপুর সদর ইউনিয়নের বারমারী বিওপি’র হাবিলদার মোঃ শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের একটি টিম সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে দুভাগে বিভক্ত হয়ে লক্ষীপুর ও ভরতপুর সীমান্ত এলাকায় টহল দিচ্ছিল। এ সময় নিজস্ব গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বিজিবি’র টহল দলটি ভারতের সীমান্ত এলাকা থেকে চোরাকারবারীদেরকে মালামাল নিয়ে এদেশে প্রবেশ করতে দেখে। বিজিবি জোয়ানরা তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করলে চোরাকারবারীরা মালামাল ফেলে দৌঁড়ে সীমান্ত এলাকা দিয়ে পালিয়ে যায়। বিজিবি’র জোয়ানরা ঘটনাস্থল থেকে বিপুল পরিমান ভারতীয় শাড়ী, থ্রি পিস ও প্রসাধনী সামগ্রী আটক করা হয়। আটককৃত মালামালের সিজার মূল্য ৫১ লক্ষ ৯০ হাজার ৯ শত ৭০ টাকা।
অপরদিকে শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে উক্ত টহল দলটি রাত ৪টার দিকে নিজস্ব গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে পশ্চিম লেঙ্গুড়া সীমান্ত এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৬২ বস্তা ভারতীয় চা পাতা আটক করে। আটক চা পাতার ওজন ২৫২০ কেজি। আটককৃত শাড়ী, থ্রি পিস ও প্রসাধনী সামগ্রী মঙ্গলবার বিকালে নেত্রকোনা কাস্টমস্ অফিসে জমা দেয়া হয়েছে। আর জব্দকৃত ভারতীয় চা পাতা ধ্বংসের নিমিত্তে ব্যাটালিয়ন সদরে জমা করা হয়েছে।

 

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।