নেত্রকোণায় আনসার সদস্যদের ভিডিপি’র মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত

বিশেষ প্রতিনিধি: কর্মক্ষেত্রে দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষে বৃহষ্পতিবার নেত্রকোণায় আনসার সদস্যদের ২১ দিন ব্যাপী অস্ত্রসহ ভিডিপি মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত হয়েছে।
জেলা কমান্ড্যান্ট আব্দুস সামাদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহের রেঞ্জ পরিচালক নূরে আলম সিদ্দিকী, বিশেষ অতিথি ছিলেন আনসার ব্যাটালিয়নের ৬ এর পরিচালক মোহাম্মাদ আসলাম সিকদার, সহ কর্মকর্তারা।
অনুষ্ঠানে পরিচালক মোঃ আসলাম সিকদার বলেন, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে মানুষের আচরণ গত পরিবর্তন হয়, দক্ষতা বৃদ্ধি পায়। এই প্রশিক্ষণ গ্রহনের মাধ্যমে ১শ জন ভিডিপি সদস্য বিভাগীয় ও বর্হিবিভাগীয় প্রশিক্ষক দের মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করে নিজেদের যোগ্য করে গড়ে তুলেছে। তিনি সদস্যদের আনসার -ভিপির অন্যান্য পেশা ভিওিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে স্বাবলম্বী হওয়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করেন।
সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে উপ-মহাপরিচালক মোহাম্মদ নূরে আলম সিদ্দিকী বলেন, বাংলাদেশ বর্তমানে উন্নয়নের মহাসড়কে রয়েছে। সবকিছু তেই উন্নয়ন ও পরিবর্তন ঘটছে। এই পরিবর্তনের সাথে সকলকে খাপ খাওয়াতে হবে নয়ত পিছিয়ে পড়তে হবে। তিনি আরো বলেন, একুশ শতকের ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে প্রয়োজন দক্ষ জনশক্তি, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী তৃনমূল পর্যায়ের লোকজনকে প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ জনশক্তি গড়তে সহায়তা করে যাচ্ছে। তিনি সরকারের প্রয়োজনে সকলকে দায়িত্ব পালনের জন্য প্রস্তুত থাকার আহবান জানান। অস্ত্র প্রশিক্ষণ টি সাফল্যজনকভাবে সমাপ্ত করায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান। সবশেষে তিনি প্রশিক্ষণে বিশেষ স্হান অর্জন কারী ৩ জন প্রশিক্ষণার্থী মাঝে পুরষ্কার বিতরন করেন। অনষ্ঠানটি সষ্ণালনায় ছিলেন সার্কেল অ্যাডজুটান্ট মো: মনিরুল ইসলাম এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা আ/ভি কর্মকর্তা মো: মোস্তাফিজুর রহমান, উপজেলা আ/ভি কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন ও ব্যাটালিয়ন আনসার প্রশিক্ষক বৃন্দ
অস্ত্রসহ ভিডিপির মৌলিক প্রশিক্ষণ জেলার ১শত জন আনসার সদস্য অংশ নিয়েছেন। পরে প্রশিক্ষণে বিশেষ দক্ষতা অর্জনের জন্য সেরা তিন জনকে ক্রেস্ট ও সনদপত্র দেয়া হয়।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।