লকডাউন মেনে সবাই ঘরে থাকুন-জেলা প্রশাসক

মদন প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাস লকডাউন  পরিস্থিতি দেখতে হঠাৎ নেত্রকোণার মদনে উচিতপুর নৌঘাটে জেলা প্রশাসক কাজি মোঃ আবদুর রহমান। সরকারের দেওয়া লকডাউন বাস্তবায়ন করতে দ্বিতীয় দিন শুক্রবার সকাল থেকে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রশাসনের লোকজন মাঠে কাজ করছেন। ওই দিন বিকালে নেত্রকোণার জেলা প্রশাসক কাজি আবদুর রহমান মদন উপজেলার বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে জনগণকে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সবাইকে ঘরে থাকার আহ্বান জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ ও উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) উম্মে সালমা এবং মদন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি তদন্ত) উজ্জ্বল কান্তি সরকার আইনশৃঙ্খলা রাক্ষাকারী বাহিনী নিয়ে (১ জুলাই) বৃহস্পতিবার থেকেই লোকজনদের ঘরে থাকার অনুরোধ জানাচ্ছেন। এর সাথে পৌর মেয়র সাইফুল ইসলাম সাইফ সেচ্ছাসেবকদের নিয়ে মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন।যতক্ষণ প্রশাসন থাকে ততক্ষণ জনসমাগম বন্ধ থাকে। কিন্তু প্রশাসনের লোকজন চলে গেলেই ফের জনসমাগম শুরু হয়।

শুক্রবার উপজেলার বিভিন্ন বাজার এলাকা ঘুরে দেখা যায়, অন্যান্য দিনের মতো মানুষের ভীড় দেখা যায়নি, দোকানপাটও বন্ধ থাকতে দেখা গেছে। সকাল থেকেই সড়কের বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে অবস্থান রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় প্রশাসনের লোকজন। সেনাবাহিনীর সদস্যরাও লকডাউন কার্যকর করতে আলাদাভাবে টহল প্রদান করছেন। এ সময় জরুরী প্রয়োজন ছাড়া যারা সড়কে বেরিয়েছেন তাদের পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে হয়। ভ্রাম্যমান আদালতের কাছে গুনতে হয় জরিমানা। তবে প্রশাসন চলে গেলেই ভীড় জমায় লোকজন।

মদন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ বলেন, সরকারে দেওয়া লগডাউন বাস্তবায়ন করতে উপজেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থানে রয়েছে। মানুষকে ঘরে থাকার অনুরোধ জানিয়ে উপজেলার সর্বস্থরে মাইকিং করা হচ্ছে। যারা বিধি নিষেধ অমান্য করে তাদের কে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যেমে জরিমানার আওতায় আনা হচ্ছে।

লগডাউনের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মাস্ক না থাকা ও অপ্রয়োজনে ঘুরাফেরার অপরাধে ১০ জনকে ১ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার হাসানুল হোসেনের তথ্যনুযায়ী এ পর্যন্ত মদন উপজেলায় ৬৯৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৫ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছে ৮ জন। সুস্থ হয়েছেন ৮৬ জন ও মৃত্যু হয়েছে ১ জনের।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।