মদনে সরকারি বিলের মাটি কেটে ইট ভাটায় নেয়ার অভিযোগ

মদন প্রতিনিধি: জরিমানা করার পরেও নেত্রকোণার মদন উপজেলার নায়েকপুর ইউনিয়নের আখাশ্রী গ্রামের সামনে এরন বিলের মাটি অবৈধ ভাবে উত্তোলন করে ইট ভাটায় নিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে এলাকার জনসাধারণের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
জানা যায়, আখাশ্রী গ্রামের সামনের সরকারি এরন বিল থেকে অবৈধ ভাবে মাটি উত্তোলন করায় বালু মহাল ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ১৫(১) ধারায় গেলো (৬ জানুয়ারি) বুধবার ভ্রম্যমান আদালতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহেদ ব্রিকস কে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। জরিমানা করায় কিছুদিন মাটি উত্তোলন বন্ধ থাকলেও পূনরায় বেপরোয়া ভাবে মাটি উত্তোলন করে নিয়ে যাচ্ছে ওয়াহেদ ব্রিকসে। এতে প্রভাবশালীরা সরকারি এরন বিল দখলে নেয়ার পায়তারা চালাছে। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সরজমিনে গেলে দেখা যায়, এক্সকোভেটর দিয়ে মাটি কেটে গাড়ি বোঝাই করে মাটি নিয়ে যাচ্ছে ওয়াহেদ ব্রিকসে।
এ সময় ওয়াহেদ ব্রিকসের মালিক আব্দুল ওয়াহেদ জানান, আমি মাটি কাটার সর্দার মহিউদ্দিনের নিকট থেকে মাটি কিনেছি। সে কোথায় থেকে মাটি দিচ্ছে তা আমার জানার প্রয়োজন নাই। জরিমানার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নতুন ইউএনও না বুঝে আমাকে জরিমানা করেছিলো।
সর্দার মহিউদ্দিন জানান, বাস্তা গ্রামের রুবেলের কাছ থেকে মাটি কিনে ওয়াহেদ ব্রিক্সে দিচ্ছি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, প্রভাবশালী ইটভাটার মালিক ওয়াহেদ মিয়া এলাকাবাসীর অভিযোগের পরও কাটাইল বাজার সংলগ্ন, স্কুল, মাদ্রাসা, মসজিদ ও মদন-তাড়াইল মূল সড়কের পাশে ইটভাটা বসিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করছেন। গত কয়েকদিন আগে অবৈধভাবে এরন বিল থেকে মাটি উত্তোলন করায় প্রশাসন ৫০ হাজার টাকা এই ব্রিক্সকে জরিমানা করেন। এর কয়েকদিন পর থেকে আবারো বেপরোয়াভাবে ঐ স্থান থেকে ব্রিক্সে মাটি আনা হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ বুলবুল আহমেদ জানান, ওয়াহেদ ব্রিক্স যদি পূণরায় এরন বিল থেকে মাটি উত্তোলন করে তাহলে দ্রুত এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।