একজন শিক্ষার্থীও স্কুলের বাইরে থাকবে না -সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী

বিশেষ প্রতিনিধি: ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে সরকার গঠন করার পর দেশে শিক্ষাসহ প্রতিটি ক্ষেত্রেই ইতিবাচক বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে। বছরের প্রথম দিন বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেওয়া হচ্ছে। একজন শিক্ষার্থীও স্কুলের বাইরে থাকতে পারবে না। সবাইকে স্কুলে যেতে হবে। শিক্ষার্থীদের বই পড়ার প্রতি আগ্রহ বাড়াতে হবে বলে মন্ত্রব্য করেন সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু এমপি। তিনি নেত্রকোণায় বৎসরের প্রথম দিন শুক্রবার শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।
মহামারি করোনার কারণে এবার সংক্ষিপ্ত পরিসরে প্রায় প্রতিটি বিদ্যালয়ে অল্প সংখ্যক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উপস্থিতে এসব বই বিতরণ করা হয়।


সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শহরের মোক্তারপাড়া এলাকায় সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সামিহা সুলতানার হাতে এক সেট নতুন বই তুলে দিয়ে বই উৎসব আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা মো. আশরাফ আলী খান। এর আগে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিবানী সাহার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছাড়াও সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন, জেলা প্রশাসক কাজি মো. আবদুর রহমান, পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুন্সী, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব জিয়া আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সোহেল মাহমুদ, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল গফুর, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ওবায়দুল্লাহ, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল প্রমুখ।
সূত্র জানায়, জেলায় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পযায়ে বইয়ের চাহিদা প্রায় ৪৬ লাখ ৮০ হাজার। এর মধ্যে প্রাথমিক স্তরে ১৬ লাখ ৭৫ হাজার ৮৭৪ টি বইয়ের মধ্যে সরবরাহ রয়েছে ১৪ লাখ ৯৯ হাজার ৭৭২টি। আর মাধ্যমিক পর্যায়ে চাহিদার তুলনায় ৪৯ হাজার বই কম রয়েছে।
জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আব্দুল গফুর এবং জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ওবায়দুল্লাহ জানান, ‘যে বই কম রয়েছে তা কয়েকদিনের মধ্যেই সরবরাহ করে শিক্ষার্থীদের কাছে পৌঁছে দেয়া হবে।’

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।