পূর্বধলায় শিশু বলাৎকারের অভিযোগে মোয়াজ্জিন গ্রেপ্তার

বিশেষ প্রতিনিধি: নেত্রকোণার পূর্বধলায় পাঁচ বছরের এক শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে একটি মসজিদের মোয়াজ্জিনকে আটক করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার রাতে পূর্বধলা থানা পুলিশ তাঁকে আটক করে। পরে দায়ের করা একটি মামলায় গতকাল বুধবার বিকেলে তাঁকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।
গ্রেপ্তার হওয়া ওই মোয়াজ্জিনের নাম আরিফুল ইলাম (৩২)। তিনি উপজেলার ধোবারুহী গ্রামের বাসিন্দা এবং উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের মোয়াজ্জিন।
এলঅকার কয়েকজন বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আরিফুল ইসলাম তাঁর স্ত্রীকে নিয়ে উপজেলা সদরের আমতলা এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। সেখানে মসজিদে মোয়াজ্জিনের পাশাপাশি ওই শিশু শিক্ষার্থীকে আরবি পড়াতেন। গত মঙ্গলবার দুপুরে ওই শিশুটি তাঁর বাসায় পড়তে এলে তিনি শিশুটিকে একা পেয়ে বলাৎকার করেন। পরে শিশুটি নিজ বাসায় গিয়ে তার পরিবারকে বিষয়টি জানায়। শিশুটির মা বিষয়টি পূর্বধলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও থানা পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওই দিন রাত আটটার দিকে মোয়াজ্জিন আরিফুল ইসলামকে আটক করে। পরে গতকাল দুপুরে শিশুটির মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়েল করলে ওই মামলায় তাঁকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।
এ ব্যাপারে পূর্বধলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও মসজিদ কমিটির সভাপতি উম্মে কুলসুম জানান, প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় মোয়াজ্জিনকে তাৎক্ষণিক স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

পূর্বধলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রফিকুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ এর (১) ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হলে ওই মামলায় আটক রফিকুল ইসলামকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।