অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে নারীদের অংশ গ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে- জেলা প্রশাসক

বিশেষ প্রতিনিধি: নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা ও নারী ক্ষমতায়নের জন্য অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে নারীদের অংশগ্রহনের জন্য সুযোগ সৃষ্টি করে দিতে হবে। সকল ক্ষেত্রে সহায়ক পরিবেশ নারী উন্নয়নের জন্য অপরিহার্য্য, যা বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ তার জন্ম লগ্ন থেকেই করে আসছে। করোনার কারণে অনেক কর্মজীবী বেকার হয়েছেন, মূলধনের অভাবে ব্যবসা করতে পারছেনা, নারী প্রগতি সংঘ তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। তাদের এ কার্যক্রম কিছুটা হলেও নারীদের ঘুরে দাড়াতে সহায়তা করবে বলে বলেন
নেত্রকোণার জেলা প্রশাসক কাজি মো: আব্দুর রহমান।
সোমবার বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ কর্তৃক পরিচালিত এ্যাডভান্সিং ইকুয়্যালিটি অফ উইম্যান এন্ড মারজিনালাইজ্ড পীপ্ল (আওয়াম) প্রকল্পের উদ্যোগে পূর্ব কাটলী সংগঠনের প্রশিক্ষণ হল রুমে অনুষ্ঠিত হয়েছে। নারী দল সদস্যদের ফেরী ব্যবসা বিষয়ক দক্ষতা মূলক প্রশিক্ষণ ও ব্যবসার মূলধন হিসেবে প্রতি জনকে ৪৫০০/= টাকা করে বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক কাজি মো: আব্দুর রহমান। এসময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার মোহাম্মদ জাফর আরিফ চৌধুরী, নারী প্রগতি সংঘের কেন্দ্র ব্যবস্থাপক মৃনাল কান্তি চক্রবর্তী ও উন্নয়ন কর্মকর্তা কল্পনা ঘোষ। এসময় কেন্দ্র ব্যবস্থাপক মৃনাল কান্তি চক্রবর্তী বলেন, করোনা কালীন সময়ে অনেক নারী কর্মহীন হয়ে পড়েছে। দলীয় সদস্যদের মাঝে যারা প্রকৃত ফেরী ব্যবসা করে সংসার চালান তাদের জন্য আমাদের এই কার্যক্রম। প্রশিক্ষণ শেষে জেলা প্রশাসক সংগঠনের বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত হন এবং অফিস ক্যাম্পাস পরিদর্শন করেন।
অনুষ্ঠানে ২০ জন দলীয় সদস্যদের নিয়ে আয়োজিত ফেরী ব্যবসা বিষয়ক প্রশিক্ষণটি পরিচালনা করেন নেত্রকোণার সফল নারী উদ্যোক্তা কামরুন্নাহার লিপি।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।