যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নূরুল ইসলামের মৃত্যুতে নেত্রকোণায় বিভিন্ন মহলের শোক

বিশেষ প্রতিনিধি: দেশের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নূরুল ইসলামের মৃত্যুতে সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু এমপি, সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি হাবীবা রহমান খান শেফালী, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রশান্ত কুমার রায়, নেত্রকোণা জেলা প্রেসক্লাব, জেলা টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরাম, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি জেলা শাখা, জেলা উদীচী, নেত্রকোণা সাহিত্য সমাজসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও ব্যক্তি শোক জানিয়েছেন।
সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু এমপি বলেন,তাঁর মৃত্যুতে দেশ একজন বড় ব্যবসায়ী এবং একজন মুক্তিযোদ্ধাকে হারালো। ব্যবসা ক্ষেত্রে তাঁর বিশেষ অবদান ছিল। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করছি।
বিশিষ্ট প্রাবন্ধিক ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক যতীন সরকার বলেন,‘গত কয়েক দিনে অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, কামাল লোহানী, ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান সহ বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির মৃত্যু ঘটলো। এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা নূরুল ইসলামের মুত্যুটি আমাদের কাছে অত্যন্ত দুঃখজনক একটি ব্যাপার। তাঁর অনেক অবদান রয়েছে। তাঁর অসমাপ্ত কাজগুলো যেনো তাঁর উত্তরসূরীরা করে। আমি তাঁর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করছি।’
জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক প্রবীণ সাংবাদিক শ্যামলেন্দু পাল বলেন,‘দেশের শিল্প বাণিজ্যের অন্যতম পথিকৃৎ নূরুল ইসলাম শুধু বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেন তা নয়, তিনি সাংবাদিকতা প্রসারে অনন্য ভূমিকা রেখেছেন। তাঁর প্রতিষ্ঠিত দেশের প্রভাবশালী পত্রিকা দৈনিক যুগান্তর ও যমুনা টিভি। নতুন প্রজন্মের মাঝে সবসময় অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে বেঁচে থাকবেন তিনি।’
জেলা টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি খলিলুর রহমান শেখ ইকবাল বলেন, নূরুল ইসলাম কেবল একজন সৎ, নিষ্ঠাবান ব্যবসায়ীই নন, তিনি বাংলাদেশে স্বাধীন ও নিরপেক্ষ গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে তিনি অসামান্য অবদান রাখেন। তাঁর মৃত্যুতে আমাদের বিশাল ক্ষতি হয়ে গেলো।’
তাঁর মৃত্যুতে আরো শোক জানিয়েছেন জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মতিউর রহমান খান, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি এড: লিয়াকত আলী খান, সাধারণ সম্পাদক মান্নান খান আরজু, নেত্রকোণা সাহিত্য সমাজের সম্পাদক সাইফুল্লাহ এমরানসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোকজন শোক প্রকাশ করেছেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।