নিশাত তাবাসসুম প্রাপ্তি’র বাস্তবধর্মী উপন্যাস“নরক নন্দিনী”র ব্যাপক সাড়া

বিশেষ প্রতিনিধি: নেত্রকোণা সরকারি কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্রী নিশাত তাবাসসুম প্রাপ্তি’র দ্বিতীয় উপন্যাস “নরক নন্দিনী” পাওয়া যাচ্ছে রকমারীসহ একুশের বই মেলায়। বইটি বাজারে আসার পর থেকে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। তরুণ প্রজন্ম থেকে শুরু করে সকল শ্রেণীর পাঠকের কাছে। এবার অমর একুশে বইমেলা ২০২০ এ ছায়াবীথি প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়েছে বইটি।
১৪ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যায় নেত্রকোণার বকুল তলার ২৪তম বসন্তকালীন সাহিত্য উৎসবে বইটির পাঠ উন্মোচন করেন এটিএন নিউজ এর নিবার্হী পরিচালক মুন্নি সাহা সহ ঢাকায় কর্মরত খ্যাতিমান সাংবাদিকগণ।
নিশাত তাবাসসুম প্রাপ্তি উপন্যাস “নরক নন্দিনী” বিষয়ে লেখিকা বলেন, “একটি বারো বছরের কিশোরীর অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার বাস্তবধর্মী উপন্যাস এটি। কন্যা, জায়া, জননী। একজন নারীকে সমাজ কিছু অভিধা দেয়। কখনো কখনো সমাজের দুষ্টক্ষত যখন দগদগে দাগে পরিণত হয়। সেখানে থেকে একজন নারীর কলংকিত পরিচয়ও তৈরি করা যায়। যখন কোন নারী সফল হয় তার পরিচয় হয় নারীত্ব দিয়ে, আর যখন কেউ ঝরে পড়ে তখন তার পরিচয় হয় সতীত্ব দিয়ে। সমাজের ঘাত-প্রতিঘাত আর পোড় খাওয়া এক নারীর চারপাশে ঘিরে থাকে কিছু নারীরূপী ডাইনি আর পুরুষরূপী মানুষ। নারী সত্ত্বা পেলেই হলো, সে সাত বছরের কন্যা হোক কিবাং বারো বছরের কিশোরী হোক। অন্ধকারের চোরাগলিতে নারী দেহ মানেই ব্যবসার বাটখারা। যেখানে শকূনেরা ছিড়ে খায় মানুষের সুখ আর সত্ত্বাকে। জীবন সেখানে নরকে পতিত একটা মৃতদেহের গল্প। সেই খরব অন্ধকারে লুকায়িতই থাকে। আমাদের শিক্ষা কি আমাদের অধিকার নিশ্চিত করছে পারছে? আইন কি আমাদের জীবনে সুরক্ষার পথ বাতলে দিচ্ছে? নাকি আইন সুবিধা বাদীদের তৈরি সুবিধা চক্র যার ভুক্তভোগী নিচু তলার মানুষ। ন্যায়-অন্যায়ের মাত্রা যখন সমতা হারিয়ে ফেলে তখন প্রশ্ন উঠে সেই জাতীর শিক্ষা, নৈতিকতা, ধর্মীয় মূল্যবোধ কিংবা সমাজ ব্যবস্থার উপর। নীতিহীনতার উগ্রমাত্রা যখন র‌্যাগিং, মাদকতা, শিক্ষা বেচাকেনা আইনের ব্যক্তিকেন্দ্রীক দাসত্ব কিংবা দেহ ব্যবসায় মহামারী রূপ ধারণ করে তখন তো সে সমাজকে প্রশ্নবিদ্ধ হতেই হবে। আমিও নিজেও সেই প্রশ্নের সম্মুখে দাড়িয়ে লজ্জিত। আমাদের অসুস্থ সমাজের একটি দূষিত রূপ। একটা কিশোরী কখনও কখনও যোদ্ধাতেও পরিণত হয় নিজের অস্তিত্ব টিকাতে। সে কি পারবে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার পক্ষে জয়ী হতে? কি হবে সেই কিশোরীর? ”
শেষ পর্যন্ত জানতে পড়ুন নিশাত তাবাসসুম প্রাপ্তির দ্বিতীয় উপন্যাস “নরক নন্দিনী” পাওয়া যাচ্ছে একুশে বই মেলায় ছায়াবীথি প্রকাশনীর ২৮০,২৮১,২৮২ নাম্বার স্টলে। কিংবা রকমারি থেকে অর্ডার করে পেতে পারেন এই অনন্য উপন্যাসটি। এছাড়াও পাওয়া যাচ্ছে সকল লাইব্রেরীতে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।