ব্লেড দিয়ে রোগীর স্তন কেটে খালিয়াজুরীতে ভুয়া চিকিৎসক গ্রেফতার

খালিয়াজুরী প্রতিনিধি: নেত্রকোণা জেলার খালিয়াজুরী উপজেলার পাঁচহাট বাজারে ভুয়া এক চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে খালিয়াজুরী থানা পুলিশ।
ওই চিকিৎসকের চিকিৎসাধীন খালিয়াজুরী উপজেলার পাঁচহাট গ্রামের এক নারীর স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত এমন কথা বলে স্তন কেটে ফেলার অভিযোগে ওই ভুয়া চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে খালিয়াজুরী থানার পুলিশ। খালিয়াজুরী থানার অফিসার ইনচার্জ এটিএম মাহমুদুল হকের নেতৃত্বে সোমবার দিনগত রাতে মানিক তালুকদার নামে ঐ ব্যক্তিকে পুলিশ পাঁচহাট বাজারের ইকবাল হোমিও হল থেকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে একই দিন উপজেলার পাঁচহাট গ্রামের শেফালী আক্তার মানিক তালুকদারের নামে লিখিত অভিযোগ করে খালিয়াজুরী থানায়।
অভিযোগে বলা হয়, গত ০৭ এপ্রিল পাঁচহাট বাজারের ইকবাল হোমিও হলে ডেকে নিয়ে যান ইকবাল নামের এক ব্যক্তি। সেখানে আমাকে অজ্ঞান করে ডাক্তার সেজে ব্লেড দিয়ে কেটে অপারেশনের মাধ্যমে আমার বাম স্তন কেটে ফেলে। গ্রেফতারকৃত মানিক তালুকদার মদন উপজেলার কাতলা গ্রামের আমির উদ্দিন তালুকদারের ছেলে।

খালিয়াজুরী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাঃ মাসরুর আহমদ সিয়াম জানান, ওই নারী ব্রেস্ট ক্যান্সার হয়েছে বলে তার স্তন কেটে ফেলা হয়েছে। বর্তমানে স্তনের ২৫/৩০ ভাগ পঁচে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এব্যপারে খালিয়াজুরী থানার অফিসার ইনচার্জ এটিএম মাহমুদুল হক বলেন, এঘটনায় ৪১৯,৩২৬,৩০৭ ধারায় মামলা রুজু করে আসামীকে কারগারে পাঠানো হচ্ছে। মূলত তিনি একজন ভুয়া চিকিৎসক। গ্রেফতারের পর মানিক তালুকদার নিজে হোমিও ডাক্তার হিসাবে পরিচয় দেন। তার কাছে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র দেখতে চাইলে তিনি তা দেখাতে পারেনি। সে মা ও শিশু, চর্ম, যৌন সার্জারীতে বিশেষ অভিজ্ঞ পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছে। এব্যপারে খালিয়াজুরী থানায় মামলা হয়েছে। প্রতারককে মঙ্গলবার দুপুরে নেত্রকোণা কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।