ঐতিহাসিক নাজিরপুর যুদ্ধ দিবস আজ

বিশেষ প্রতিনিধি: ২৬শে জুলাই বৃহস্পতিবার ঐতিহাসিক নাজিরপুর যুদ্ধ দিবস আজ। ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধে এই দিনে নেত্রকোণার কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর নামক স্থানে পাক সেনাদের সঙ্গে সম্মুখ যুদ্ধে সাত জন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন। পরে শহীদ মুক্তিদ্ধোদের লাশ বহন করে মুক্তিযোদ্ধারা লেঙ্গুরা ইউনিয়নের ফুলবাড়ী সীমান্তে নিয়ে ১১৭২ নং পিলার সংলগ্ন স্থানে সমাধিত করেন। এই সম্মুখ যুদ্ধে নেতৃত্ব দেন টাইগার বাহিনী খ্যাত বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হোসেন তারা।
শহীদ মুক্তিযোদ্ধারা হলেন ডা. আব্দুল আজিজ (নেত্রকোণা), মো. ফজলুল হক (নেত্রকোণা),) মো. ইয়ার মাহমুদ (মুক্তাগাছা), ভবতোষ চন্দ্র দাস (মুক্তাগাছা), মো. নুরজ্জামান (মুক্তাগাছা), দ্বিজেন্দ্র চন্দ্র বিশ্বাস (মুক্তাগাছা) ও মো. জামাল উদ্দিন (জামালপুর)। এ উপল্েয প্রতি বছর জেলা ও উপজেলা প্রশাসন ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উদ্যোগে নাজিরপুর এ নির্মিত স্মৃতিসৌধে ও ফুলবাড়ী শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের সমাধিতে পুষ্প স্তবক অর্পণ, বিশেষ মোনাজাত ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে এই দিবস পালন করা হয়।


প্রথমেই নেত্রকোণা-১ আসনের সংসদ সদস্য মানু মজুমদার, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক আরিফুল ইসলাম, জেলা পুলিশ, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের পক্ষ থেকে বীরমুক্তিযোদ্ধগণ স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।
পরে দুপুর ১২টায় লেংগুরা সাত শহীদের সমাধিস্থলে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডো ও পুলিশ বাহিনী কর্তৃক গার্ড অফ ওনার সহ সালাম প্রদান শেষে দুপুর ২টায় লেংগুরা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এ কর্মসূচীতে নেত্রকোণা, ময়মনসিংহ, শেরপুর, জামালপুর, কিশোরগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ জেলার বিপুল সংখ্যক বীর মুক্তিযোদ্ধা, রাজনৈতিক, শহীদ পরিবার, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সাংবাদিকসহ নানান পেশার লোকজন অংশগ্রহণ করেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।